Eye Tech 24 https://www.eyetech24.com/2020/08/blog-post_25.html

রাউটারের যেসকল সেটিংস্‌ আপনি অবশ্যই পরিবর্তন করবেন

আপনি কি Router ব্যবহার করেন? যদি করে থাকেন তবে আপনার অবশ্যই জানা উচিত, আপনি যদি আপনার Router এর কিছু সেটিংস্‌ পরিবর্তন না করেন তবে আপনার সংরক্ষিত অনেক গুরুত্বপূর্ণ তথ্য চুরি হয়ে যাবার অনেক সম্ভবনা থেকে যাবে। এখন আপনার মনে নিশ্চয়ই এই প্রশ্ন জেগেছে যে, কোন কোন সেটিংস্‌ আপনার পরিবর্তন করা উচিত? যদি সেগুলো জানতে চান তবে চটপট পড়ে ফেলুন আর্টিকেলটি।



বেশ কয়েক বছর আগে Universal Plug and Play Protocol, যার মাধ্যমে অনেক ডিভাইস এক নেটওয়ার্কে সংযুক্ত হয়, ব্যবহার করে অনেকগুলো ডিভাইস হ্যাক করে তথ্য চুরি করে নেওয়া হয়। তাই, আপনি যদি আপনার Router এর কিছু সেটিংস্‌ পরিবর্তন না করেন তবে আপনার অনেক গুরুত্বপূর্ণ তথ্য আপনার Router এ সংযুক্ত কোনো ডিভাইস চুরি করে নিয়ে যেতে পারে। তাই, আগেভাগেই সতর্ক হয়ে যাওয়া ভালো।

Firmware Update And Factory Reset:

আপনি যদি আপনার Router অনেক বেশি সুরক্ষিত রাখতে চান তবে আপনার উচিত আপনার Router এর Firmware আপডেট করা। তবে Firmware আপডেট করার আগে আপনার উচিত Router এর Factory Reset করা। আপনি আপনার Ip Address ব্যবহার করে Router এর অ্যাডমিন প্যানেলে প্রবেশ করতে পারবেন। আপনি যদি Router Password এবং Ip Address না জেনে থাকেন তবে লিংক ১ এ গিয়ে খুঁজে পাবেন Ip Address এবং লিংক ২ এ পাবেন Password লিংক ১ এবং লিংক ২

Firmware Update:

আপনি আপনার Router এর অ্যাডমিন প্যানেলে গিয়ে আপনার Router এর নতুন Firmware ডাউনলোড করতে পারেন। তবে, আপনার Router যদি অনেক বেশি পুরাতন হয়, তবে আপনার Router এ নতুন Firmware সাপোর্ট নাও করতে পারে। এ জন্য আপনার Router পরিবর্তন করা জরুরি।

Resetting Factory Settings:

আপনি নতুন Firmware আপডেট করার আগে অবশ্যই  Factory Settings রিসেট করে নিবেন। কারণ, কোনো হ্যাকার যদি আগে আপনার Router হ্যাক করে থাকে তবে Router রিসেট করে নিলে নতুন Firmware হ্যাকার আর হ্যাক করতে পারবে না। আর হ্যাঁ, অবশ্যই রিসেট করার আগে আপনার ডাটাগুলো ব্যাকআপ দিয়ে রাখবেন।

Password Change:

আপনি অবশ্যই আপনার Firmware আপডেট করার পর Password পরিবর্তন করবেন। কখনো বাই ডিফল্ট Password ব্যবহার করবেন না। কারণ, যেকোনো Firmware এর Password হ্যাকাররা সহজে খুঁজে বের করতে পারে। তাই, এই বিষয়ে সাবধান হয়ে যান।

New Password Generate:

সবকিছু শেষ করার পর এবার আপনার Router এর Password সেট করুন। আপনি অবশ্যই একটি UNIQUE Password ব্যবহার করবেন। আপনি এই  নং লিংকে গিয়ে শক্তিশালী Password তৈরি করতে পারবেন। লিংক ১

উপরের সবকিছু করার পর আপনার উচিত আরও কিছু সিকিউরিটি সেট করে রাখা যেটা আপনার জন্য অনেক বেশি উপকারী হবে।

Wifi Protected Setup (WPS):

WPS ব্যবহার করলে যেকোনো বেক্তি একটি পিন কোড ব্যবহার করে সহজে আপনার নেটওয়ার্কে সংযুক্ত হতে পারবে। অনেকেই এটি ব্যবহার করেন না। তাই, আপনি ইচ্ছা হলে বন্ধ করে রাখতে পারেন।

Remote Administration: 

অনেক Router আছে যেগুলো তাদের অ্যাডমিন প্যানেল অন্য নেটওয়ার্ক থেকে প্রবেশ করার অনুমতি দিয়ে থাকে। কিন্তু, এটা একদমই নিরাপদ নয়। তাই, অবশ্যই এই ফাংশনটি বন্ধ করে রাখুন।

Universal Plug and Play: 

এই ফাংশনটি আপনার Router এ চালু করা থাকলে আপনি ঐ Router এ যতগুলো ডিভাইস সংযুক্ত থাকবে সেগুলোর সাথে যোগাযোগ করতে পারবেন। অধিকাংশ হ্যাকিং এই ফাংশন চালু করে রাখবার জন্য হয়। তাই, আপনার যদি নিতান্তই এটি ব্যবহার করার প্রয়োজন হয় তবে আপনি অবশ্যই আপনার Router এর Firmware আপডেট করে রাখবেন।

আপনি যদি উপরের নিয়মগুলো মেনে চলেন তবে আপনি অনেক হ্যাকিং সমস্যা থেকে মুক্তি পাবেন। তাই, দেরি না করে দ্রুত পরিবর্তন করে ফেলুন আপনার Router এই সেটিংসগুলো। আর, আপনি যদি অনেক বেশি পুরাতন Router ব্যবহার করে থাকেন তবে আমি বলবো অবশ্যই নতুন Router কিনুন যেটা আপনার জন্য অনেক বেশি ভালো হবে।

অন্যদের সাথে শেয়ার করুন

0 Comments

দয়া করে নীতিমালা মেনে মন্তব্য করুন ??

নতুন পোস্টের নটিফিকেশন পেতে চান?

নটিফিকেশন ও নোটিশ এরিয়া